Skip to main content

খাসির মাংসের মজাদার খিচুড়ির রেসিপি

খিচুড়ি আমাদের নিশ্চয় সবারই পছন্দের খাদ্য। আমার তো খিচুড়ি অনেক পছন্দ। তাই আমি সুন্দর সুন্দর রেসিপি দেখি। আর চেষ্টা করি ভাল করে রান্না করতে। আপনারা যারা খিচুড়ির জন্য রেসিপি খুজতেছেন তাদের জন্য আমার এই রেসিপিটি। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া জাক খাসির মাংসের খিচুড়ি রেসিপি।

 

মাংস রান্নার জন্য

  • খাসির মাংসদেড় কেজি,
  • পেঁয়াজকুচি- ১ কাপ,
  • আদাবাটা- ৩ টেবিল চামচ,
  • রসুনবাটা- ৩ টেবিল চামচ,
  • হলুদগুঁড়া- ২ টেবিল চামচ,
  • মরিচগুঁড়া- ২ টেবিল চামচ,
  • ধনেগুঁড়া- ২ টেবিল চামচ,
  • ভাজা জিরার গুঁড়া- ১ টেবিল চামচ (জিরা টেলে গুঁড়া করা),
  • গরম মসলার গুঁড়া- ১ টেবিল চামচ,
  • লবণ- স্বাদ মত,
  • তেল- পরিমাণমত ।

 

খিচুড়ি রান্নার জন্য

  • পোলাওয়ের চাল- ১ কেজি বা ৪ কাপ,
  • মুগ ডাল- ১ কাপ (টেলে নিতে হবে),
  • বুটের ডাল- আধা কাপ (তিন থেকে চার ঘণ্টা আগে ভিজিয়ে রাখবেন),
  • মসুরের ডাল- আধা কাপ,
  • এলাচ- ৩,৪টি,
  • দারুচিনি- ১টি,
  • তেজপাতা + লবঙ্গ- ২ থেকে ৩টি,
  • আদাকুচি- পরিমাণ মতো,
  • তেল- পরিমাণমত,
  • ঘি- ৩ টেবিল-চামচ,
  • কাঁচামরিচ- ১০,১২টি,
  • লবণ স্বাদ মতো,
  • গরম পানি- সাড়ে ৭ কাপ (চাল মাপার কাপ)।

 

 

খাসির মাংসের খিচুড়ি যেভাবে রান্না করবেন

একটা হাঁড়িতে মাংসের মসলার সব উপকরণ দিয়ে মাংসের সাথে সুন্দর করে মেখে মেরিনেট করে নিতে হবে (মেরিনেট করবেন ভালভাবে যাতে মাংসের মধ্যে সব মসলার উপকরন ধুকে)। তারপর চুলায় মাঝারি থেকে একটু কম আঁচে মাংসের হাঁড়ি বসিয়ে দিয়ে রান্না করতে হবে৷ মাংস থেকে পানি বের হবে সেই কারনে পানি দিতে হবে না৷ মাংস কম আঁচে রান্না করলে সেটার মধ্যে থাকা পানিতে সিদ্ধ হয়ে যাবে।

মাংসের পানি মাখা মাখা হয়ে আসলে কষিয়ে ভাজা ভাজা করে নিতে হবে। তারপর তেল উপরে উঠে আসলে যদি দেখেন সিদ্ধ কম হয়েছে। তাহলে পরিমাণ মতো পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে৷ চাইলে প্রেসার কুকারে চারটি শিস দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে পারেন, তাইলে তাড়াতাড়ি হবে৷ মাংসে বেশি ঝোল থাকবে না৷ সিদ্ধ হয়ে, মাখা মাখা ঝোল হওয়া পর্যন্ত চুলার আঁচ বাড়িয়ে রান্না করতে হবে৷

রান্নার ৩০ মিনিট আগে চাল ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন (বাসমতি চাল হলে ৩০ মিনিট আর পোলাওয়ের চাল হলে ২০ মিনিট)৷ ধুয়ে চালনিতে রেখে পানি ঝরিয়ে রাখতে হবে৷ মুগডাল ভেজে নিয়ে ঠাণ্ডা করে চালের সাথে ভিজিয়ে রাখতে হবে৷ তাহলে ডাল সুন্দরভাবে সিদ্ধ হবে৷

আলাদা হাঁড়িতে তেল গরম করে আস্ত সব গরম মসলা, আদাকুচি আর আস্ত কাঁচামরিচ দিয়ে কয়েক সেকেন্ড ভাজতে হবে। এবার পানি ঝরানো চাল, তিন রকম ডাল দিয়ে পাঁচ থেকে ছয় মিনিট সব একসাথে ভাজতে হবে। চাল আর ডাল যত বেশি ভালো করে ভাজবেন খিচুড়ি তত বেশি মজা হবে এবং ঝরঝরে থাকবে।

চাল ভাজা হলে গরম পানি আর লবণ দিয়ে দুতিন বলগ (ফুটে) আসা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এখন বলগ আসলে রান্না করা মাংস চালের সাথে নেড়ে মিশিয়ে দিয়ে চুলার আঁচ কমিয়ে ঢেকে দিতে হবে৷ ২৫ মিনিট ঢেকে দমে রান্না করবেন৷ মাঝখানে ঢাকনা একদম খুলবেন না। নইলে খিচুড়ি রান্না নষ্ট হয়ে যাবে৷ ২০ থেকে ২৫ মিনিট পর ঢাকনা খুলে উপরে ঘি দিয়ে নেড়ে মিশিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

 

যে বিষয় মনে রাখবেন

চাল যতটুকু তার অর্ধেক ডাল দিয়ে খিচুড়ি রান্না করলে মজা হয়৷ চাল, পানি, ডাল একই কাপে মেপে দেবেন। মাংস দেওয়ার আগে, চালের পানি যদি ঠিক হয় তাহলে রান্নার পর খিচুড়িতে লবণ কম হবে। আর যদি সামান্য বেশি লাগে তাহলে রান্নার পর লবণ ঠিক থাকবে।

  • আরো সুন্দর ও সুস্বাদু রেসিপি পেতে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন। 

 

 

প্রিয়া সাঈদ

প্রিয়া সাঈদ একজন স্নাতক এবং হাউজওয়াইফ। বই পড়া এবং জ্ঞান অর্জন করা তার প্রধান শখ এবং সাথে সাথে তার অর্জিত জ্ঞানকে সে শেয়ার করতে পছন্দ করে। আর এজন্য বিডি টিপস অ্যান্ড ট্রিকস এ তার এই বাস্তব এবং জ্ঞানগর্ভমূলক পোস্টসমূহ। তার এই পোস্টসমূহ যদি আপনার উপকারে আসে তাহলে অবশ্যই লাইক এবং শেয়ার করবেন আশা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*